Skip to content

ব্যাবসায়ে সাফল্য ও ব্যার্থতার কারণ

ব্যাবসায়ে সাফল্য ও ব্যার্থতার কারণ

আমরা 10 জন ব্যবসার মালিকের সাথে কথা বলেছি তারা আমাদের ব্যাবসায়ে সাফল্য ও ব্যার্থতার কারণ ও সফল ব্যবসার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্যগুলি আমাদের সাথে শেয়ার করেছে৷

শিল্প নির্বিশেষে উদ্যোক্তা হওয়া একটি কঠিন কিন্তু ফলপ্রসূ কর্মজীবনের পথ। যদিও বিভিন্ন ধরণের ব্যবসা সফলতাকে বিভিন্নভাবে নির্ণয় করতে পারে, তবে তাদের মাঝেও কিছু সর্বজনীন অভ্যাস বা গুণাবলী রয়েছে যা প্রায় সকল ধরণের সফল ব্যবসার মধ্যে রয়েছে।

একজন উদ্যোক্তার ইদ্যোগ সফর সবার হওয়ার উপর শুধু উদ্যোক্তার নিজের উন্নয় নির্ভর করে না, বরং দেশ ও দশের উন্নতিও নির্ভর করে। উদ্যোক্তা উদ্যোগ সফল বা ব্যর্থ হওয়ার অনেকগুলো বিষয়ের উপর নির্বর করে।

গবেষণায় দেখা গেছে, সুনির্দষ্ট কিছু নীতিমালা অনুসরণ করে যারা ব্যবসায় পরিচায়না করেন, তারাই কেবল সফল হন।নিম্নে ব্যবসায় সফল ব্যর্থ হওয়ার কারণগুলো আলোচনা করা হলোো।

ব্যাবসায় সফল বা ব্যর্থ হওয়ার কারণসমূহঃ

১। ব্যবসায়ের সঠিক পণ্য নির্ধারণ

সঠিক পণ্য নির্ধারণ ব্যবসায়ের সাফল্যের অন্যতম পূর্বশর্ত। উদ্যোক্তাকে পণ্য নির্বাচন করার করার পূর্বে বাজারে সেই পণ্যের চাহিদা আছে কি না তা নিরূপণ করতে হবে।

২। সঠিক পরিকল্পনা প্রণয়ন

ভবিষ্যতে কী, কখন এবং কীভাবে একটি কাজ করতে হবে তা অগ্রিম চিন্তাভাবনা করার নামই পরিকল্পনা। সঠিক পরিকল্পনার অভাব ব্যবসায়ে ব্যর্থতার অন্যতম কারণ। তাই ব্যবসা বাণিজ্য সফলভাবে পরিচালনার জন্য একটি সুষ্ঠ পরিকল্পনা প্রণয়ন জরুরি।

৩। প্রাথমিক মূলধন

দীর্ঘমেয়াদি এবং স্বল্পমেয়াদি উভয়ক্ষেত্রেই শিল্পপ্রতিষ্ঠানের প্রাথমিক মূলধন যথেষ্ট হওয়া চাই। প্রয়োজনীয় মূলধন নির্ধারন বা সংগ্রহ করতে ব্যর্থ হলোে যথাযথভাবে ব্যবসা পরিচালনা করা যায় না। বাংলাদেশে শিল্পপ্রতিষ্ঠানে চলতি মূলধনের ঘাটতির কারণে উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রার নিচে অবস্থান করে।

৪। বাজারে চাহির পরিমাণ নিরূপন

বাজারে চাহিদার পরিমাণ সঠিকভাবে নির্ধারণ এবং কতটুকু সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্টা সরবরাহ করতে পারবে তা নিরূপন ব্যবসায় সফলতার অন্যতম শর্ত। উপযুক্ত কলাকৌশলের মাধ্যমে সংগ্রহীত তথ্যাবলি বিশ্লেষণের মাধ্যমে এ চাহিদা নির্ধারন করা উচিত।

৫। পণ্য বাজারজাতকরণ

শুধুমাত্র পণ্যের চাহিদা নিরুপন সফলতার জন্য যথেষ্ট নয়। উৎপাদিত পণ্য যথাযথ গুণাগুণসম্পন্ন হওয়া চাই এবং তা কীভাবে বাজারজাতকরণ করা হবে, তা পূর্বেই নির্ধারণ কবতে হবে। সুপরিকল্পিতভাবে বাজারজাতকরণ পক্রিয়া ব্যবসায়ের সাফল্যের চাবিকাঠি।

৬। শিক্ষা ও অভিজ্ঞতা

ব্যবসাবাণিয্যে অতীত অভিজ্ঞতা সফলতার জন্য অনেক যথেষ্ট সহায়ক। গবেষণার মাধ্যমে এ সত্যতা প্রমাণিত হয়েছে। কিন্তু অভিজ্ঞতার সাথে শিক্ষাও অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িত। গবেষণার ফল থেকে দেখা যায়, ব্যবসায়ে পূর্ব-অভিজ্ঞতাসম্পন্ন উদ্যোক্তাগণ সবচেয়ে বেশি সফল হন।

৭। যৌথ উদ্যোগ

পারস্পরিক সহযোগিতা ও যৌথ উদ্যোগ শিল্পপ্রতিষ্ঠানের সাফল্যের লক্ষ্যে পোঁছানের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান।

৮। ব্যবসায়ের উপযুক্ত অবস্থান নির্বাচন

ব্যবসায়ে প্রতিষ্ঠান এমন স্থানে হওয়া উচিত, যেখানে বিভিন্ন অবকাঠামোগত সুবিধা রয়েছে।

৯। সুষ্ঠ তদারক ব্যবস্থা ও হিসাবরক্ষণ

ব্যবসায়ে সাফল্য লাভ করতে হলোে একদিকে যেমন সুষ্ঠ তদারক ব্যবস্থা নিশ্চিত করা প্রয়োজন, অন্যদিকে যথাযথ হিসাবরক্ষণ অবশ্যক। যথাযথভাবে হিসাবরক্ষণ না করলে অনেক ব্যবসায় কিছুকাল চলার পর বন্ধ হয়ে যায়।

১০। সুষ্ঠ ঝণ ব্যবস্থা

ঋণ দেয়া বা নেয়া উবয়ক্ষেত্রেই সুষ্ঠ ঋণ ব্যবস্থাপনা ব্যবসায় সাফল্যের একটি অন্যতম উপায়।

তাই বলা যায়-

সাফল্য ও ব্যর্থতা ব্যবসায় পরিচালনার ক্ষেত্রে সাফল্য ও ব্যর্থতা অনেকাংশে নির্ভর করে আত্মকর্মসংস্থানের উপযুক্ত ক্ষেত্র নির্বাচনের উপর।

ব্যবসার জন্য সঠিক পণ্য নির্বাচন সাফল্য লাভের অন্যতম পূর্বশর্ত। পণ্য বা ব্যাবসার ধরন নির্বাচনের পূর্বে বাজারে সেবা বা পণ্যটির চাহিদা ও গ্রহণযােগ্যতা যথাযথভাবে নিরূপণ করতে হবে।

সঠিক পণ্য নির্বাচন, পণ্যের চাহিদা নির্ধারণ, সঠিক প্রযুক্তি ব্যবহার, আর্থ-সামাজিক ও রাজনৈতিক অবস্থা সম্পর্কে অবহিত থাকা পন্য বা সেবার ক্রেতা, পন্য বা সেবার ক্রেতা আছে কি না তা যাচাই করা, পন্য বা সেবার বাজারজাত করার পন্থা ঠিক করা বাজার জরিপ ও অন্যান্য পদ্ধতির মাধ্যমে পণ্যের সঠিক চাহিদা নিরূপণ ব্যবসায়ে সাফল্যের গুরুত্বপূর্ণ শর্ত।

তাছাড়া পণ্যের বাজারের পরিধি এবং বাজারজাতকরণের কৌশল পূর্বেই যথার্থভাবে নিরূপণ করতে হবে। অভিজ্ঞতা ও শিক্ষা উদ্যোক্তার ব্যবসা সম্পর্কে পূর্ব-অভিজ্ঞতা এবং ব্যবস্থাপনা বিষয়ে উপযুক্ত শিক্ষা ব্যবসায় সফল হতে সাহায্য করে।

ব্যবসায় একবার ব্যর্থ হলোে ব্যর্থতার কারণগুলাে পুঙ্খানুপুঙ্খরূপে বিশ্লেষণ করে হতাশ হওয়ার পরিবর্তে শিক্ষা গ্রহণ করে নতুনভাবে কাজ শুরু করার মধ্যে ব্যবসায়ের সাফল্য নিহিত।

সুষ্ঠু ব্যবসা পরিকল্পনা প্রণয়ন ব্যবসায় সফলতা অর্জনের আর একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলোাে সঠিক ব্যবসা পরিকল্পনা প্রণয়ন। ব্যবসায়ে হাত দেওয়ার পূর্বেই ব্যবসার কাজ কখন এবং কীভাবে করা হবে তা অগ্রিম চিন্তা করে ঠিক করাই হচ্ছে পরিকল্পনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Copyright Notice

কপি করা নিষিদ্ধ!